প্রস্রাব সম্পর্কিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

 স্বাস্থ্য কথা      
img প্রস্রাব করা এমন একটি বিষয়, যা ছাড়া জীবন চলে না৷ এমনিতে হয়ত খুবই সামান্য একটা ব্যাপার, কিন্তু এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টা সম্পর্কে আমরা কতটুকু জানি ? আসুন জেনে নেই প্রস্রাব সম্পরকিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

প্রস্রাবে কী কী আছে?
প্রস্রাবে সাধারণত তিন হাজার উপাদান থাকে৷ ২০১৩ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রস্রাবে ৯৫ ভাগ পানি আর তিন ভাগ ইউরিয়া থাকে৷

প্রস্রাবের রং
প্রস্রাবের বা মূত্রের রং যদি হলুদ হয়, তাহলে বুঝতে হবে, আপনার শরীরে পানি কম৷ এছাড়া অসুস্থতার কারণেও প্রস্রাবের রং হলুদ হতে পারে৷ আর প্রস্রাবের রং লাল হলে বুঝতে হবে কোনো ধরণের সংক্রমণ হয়েছে বা কিডনি ঠিকমতো কাজ করছে না৷

ব্লাডারের ক্ষমতা
সাধারণত একজন মানুষ দিনে ৭ বার প্রস্রাব করে৷ আমাদের ব্লাডার ৫০০ থেকে ৬০০ মিলিলিটার প্রস্রাব ধারণ করতে পারে৷

অপ্রয়োজনীয় দ্রব্য বের করে দেয়া
প্রস্রাব কেবল যে আমাদের শরীর থেকে পানি বের করে দেয় তা নয়, বরং এর সাথে শরীরের অনেক অপ্রয়োজনীয় দ্রব্যও বের করে৷ কিডনি ফিল্টার করে এসব দ্রব্যকে ব্লাডারে পাঠায়, প্রস্রাবের সাথে সেসব দ্রব্য শরীর থেকে বের হয়ে যায়৷

পুরুষ ও নারীর মধ্যে পার্থক্য
যে নালীর মাধ্যমে ব্লাডার থেকে প্রস্রাব বের হয় তাকে ইউরেথ্রা বলে৷ নারীদের ইউরেথ্রা’র দৈর্ঘ্য ৪.৮ থেকে ৫.১ সেন্টিমিটার পর্যন্ত হতে পারে আর পুরুষদের ইউরেথ্রার দৈর্ঘ্য হয় ২০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত৷

বয়সের সাথে পার্থক্য
বয়সের সাথে সাথে শরীরের মাংসপেশী দুর্বল হতে থাকে৷ এজন্য বয়স্ক মানুষের প্রস্রাবে বেশি সময় লাগে৷ ক্ষুদ্রান্ত ও ব্লাডারের মাংসপেশী দুর্বল হয়ে যায় বলে এতটা সময় লাগে৷

বার বার প্রস্রাব
বয়সের কারণেই মাংসপেশী দুর্বল হয়ে যাওয়ায় কিছু প্রস্রাব ব্লাডারে থেকে যায়, তাই বয়স্করা বার বার টয়লেটে যান৷

ব্যথার কারণ
প্রস্রাব করার সময় যদি প্রচণ্ড ব্যথা হয়, তবে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যেতে হবে৷ কিডনি বা ইউরিনারি ট্র্যাক ইনফেকশনের কারণে ব্যথা হয়ে থাকতে পারে৷

প্রস্রাব আটকে রাখা
প্রস্রাব আটকে রাখলে ইনফেকশন হতে পারে৷ তাই প্রস্রাব আটকে না রেখে করে ফেলাই উত্তম বলে জানান চিকিৎসকরা৷



লেখাটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন







এই বিভাগের আরো খবর








সর্বাধিক পঠিত